• শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৫:০৬ অপরাহ্ন
  • English Version

রাজশাহীর তানোরে সরকারী খাস জায়গায় জবর দখল করে বাঁশ ও টিন দিয়ে ঘর নির্মান

রিপোর্টার
আপডেট : রবিবার, ১ আগস্ট, ২০২১

আশরাফুল ইসলাম রনজু রাজশাহী প্রতিনিধি:

রাজশাহীর তানোর উপজেলার তালন্দ ইউপির দেবিপুর মোড়ের সরকারী জায়গা জবর দখল করে বাঁশ ও টিন দিয়ে ঘর করে ওয়ার্কার্স পার্টির ব্যানার টাংগানোর ঘটনা ঘটেছে। রোববার দুপুরে টিন দিয়ে ঘরটি নির্মান করা হয়।

এঘটনায় এলাকায় দু’গ্রুপের মধ্যে চরম উত্তজনা বিরাজ করছে। ওই ঘরটি উচ্ছেদ না করা হলে যে কোন মহুর্তে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশংকা করছেন এলাকাবাসী।

অপর দিকে ওই খাস জায়গার পেছনের জমির মালিক বাদি হয়ে তানোর থানা ও তানোর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভুমি)সহ উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর পৃথক পৃথক ভাবে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

অভিযোগ, পুলিশ ও এলাকাবাসী সুত্রে জানা গেছে, তানোর উপজেলার তালন্দ ইউনিয়ন পরিষদ সংলগ্ন পশ্চিম পার্শের জমির মালিক খোদা বক্স মন্ডল। খোদা বক্স মন্ডল দীর্ঘদিন ধরে তার জমির সামনের রাস্তার ধারের সরকারী জায়গায় মাটি ভরাট করে চাষাবাদ করছেন।

গত ২০ জুলাই তানোর উপজেলার তালন্দ ইউপি এলাকার দেবিপুর গ্রামের মৃত ইয়াসিন আলীর ছেলে মনির উদ্দীন (৩৫), একই গ্রামের মৃত আব্দুলের ছেলে রহেদ আলী (৪০)সহ কয়েকজন ওই জায়গাসহ যাত্রী ছাউনি ঘেষে পেছনের জায়গা জবর দখল করে বাঁশ দিয়ে ঘর নির্মান শুরু করেন।

এসময় খোদা বক্স মন্ডল বাধা নিষেধ করতে গেলে দখল কারীরা বিভিন্ন প্রকার গালাগালাীসহ হত্যার হুমকি দেয়।

এসময় নিরুপাই খোদা বক্স মন্ডল মনির উদ্দীনসহ ৪ জনকে আসামী করে তানোর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগের প্রেক্ষিতে থানা পুলিশ বিবাদীদেরকে ঘর নির্মান করতে নিষেধ করেন।

অপর দিকে তানোর উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর দেয়া অভিযোগটি তদন্ত করে রিপোর্ট প্রদানের জন্য তালন্দ ইউনিয়ন তহসীলদারকে নির্দেশ প্রদান করেন।

তালন্দ ইউনিয়ন তহসীল অফিসের তহসীলদার লুৎফর রহমান সরেজমিন তদন্ত করে ঘর নির্মানের জায়গাটি সরকারী জায়গা হিসেবে উল্লেখ করে রিপোর্ট প্রদান করেন।

১লা আগষ্ট রোববার দখলকারীরা টিন দিয়ে ঘর নির্মান সম্পুর্ণ করে দুপুরের ভুরি ভোজ করেছেন।

এবিষয়ে রাজশাহী ওয়ার্কার্স পার্টির সদস্য ও তালন্দ ইউনিয়ন সভাপতি মনির উদ্দীন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, জেলা পরিষদের জায়গা আবেদন করেছি ১২বছর আগে কিন্তু অনুমতি পাইনি তাই ঘর করেছি।

তিনি বলেন, অভিযোগকারী সব জায়গা ভোগ করবে এটা হতে পারেনা।

তানোর উপজেলা নির্বাহী অফিসার পংকজ চন্দ্র দেবনাথ বলেন, বিষয়টির ব্যবস্থা গ্রহসের জন্য তানোর সহকারী কমিশনার বরাবর দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। তিনি বলেন, ঘরটি যদি সরকারী জায়গায় হয় তাহলে উচ্ছেদ করা হবে।


এই বিভাগের আরো খবর