শিরোনাম:

বিষ হাতে প্রেমিকের বাড়িতে প্রেমিকার অনশন

           
আজকের কাগজ ২৪ ডেস্ক
প্রকাশিত : আগস্ট ১, ২০২২

নড়াইলের কালিয়ায় বিজিবি সদস্য শামীম মোল্যার বাড়িতে বিয়ের দাবিতে বিষের বোতল হাতে শিরিতাজ পারভিন (৩০) অনশনে বসেছেন। তিনি চুয়াডাঙ্গা জেলার আলমডাঙ্গা উপজেলার ইসলামপুর গ্রামের মৃত আজিজুল হকের মেয়ে। রবিবার (৩১ জুলাই) বিকালে প্রেমিকা শিরিতাজ পারভিন কালিয়ার কলেজ পাড়া মির্জাপুরে প্রেমিক শামিমের ভাড়া বাড়িতে অবস্থান করেন।

মেয়েটি আশার খবর পেয়ে শামিমের বাবা খায়রুল মোল্যা ও তার মা বাড়িতে তালা মেরে পালিয়ে যায়। প্রেমিক শামিম মোল্যা কালিয়া উপজেলার কান্দুরি গ্রামের খায়রুল মোল্যার ছেলে। খাইরুল মোল্যা উপজেলার মধুমতি কারিগরি মহাবিদ্যালয় এর দপ্তরী কাম নৈশ প্রহরী। অনশনে বসা ওই প্রেমিকা শিরিতাজ পারভিন বলেন,টিকটকের মাধ্যমে তাদের পরিচয়। তারপর ফেইসবুক ও ফোনে কথাবার্তা। এর পর শুরু হয় তাদের প্রেম ভালোবাসা। পরে শামিম মোল্যা ছুটিতে এসে দেখা করে খুলনার সোনাডাঙ্গা তার বন্ধু সোহেলের বাড়িতে। ধীরে ধীরে তাদের সম্পর্ক গভির হতে থাকে। শামিম তার প্রেমিকার কাছ থেকে হাতিয়ে নেয় লক্ষ,লক্ষ টাকা।

পারভিনকে এড়িয়ে চলে এবং তার সাথে যোগাযোগ বন্ধ করে দেয়। তিনি আরো বলেন, আমি বিয়ের দাবীতে,স্ত্রীর স্বীকৃতির জন্য শামিমের বাড়িতে অনশন করছি। যদি আমাকে মেনে না নেয়। শামিম বিয়ে না করে তাহলে আমি বিষ খেয়ে মারা যাবো। শামিম মোল্যা বর্তমানে কুষ্টিয়ার মিরপুর ৪৭ ব্যাটালিয়নে কর্মরত রয়েছেন।

স্থানীয় সুত্রে জানা গেছে, শামিম মোল্যা গত ৩ বছর আগে বিজিবিতে চাকুরি পায়। চাকুরি হওয়ার আগে ৮ লক্ষ টাকা যৌতুক নিয়ে কালিয়া উপজেলার বিলবাউচ গ্রামের তৈয়ব কাজীর মেয়ে স্বর্ণাকে বিয়ে করে বিয়ের খবর গোপন রাখে। চাকুরি হওয়ার পরে বছর খানেক পরে চলতি বছরে দুমাস আগে সালিশ বৈঠকের মাধ্যমে স্বর্নাকে ডিভোর্স দিয়ে দেয়।

এ বিষয়ে বিজিবি সদস্য শামীম মোল্যার মুঠোফোনে কথা হলে তিনি জানান, শিরিতাজ পারভীনের সাথে আমার সম্পর্ক ছিল কিন্তু আমার থেকে তার বয়স বেশি হওয়ায় আমি তাকে বিয়ে করতে পারবোনা।

সূত্রঃ পিবিএ

� পূর্ববর্তী সংবাদ পরবর্তী সংবাদ �
Hosting
সর্বশেষ সংবাদ
  • সর্বাধিক পঠিত