শিরোনাম:

চৌদ্দগ্রামে ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানে হামলা ভাংচুর ও লুটপাট

           
আজকের কাগজ ২৪ ডেস্ক
প্রকাশিত : এপ্রিল ৯, ২০২২


চৌদ্দগ্রাম প্রতিনিধি:
কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে পূর্ব বিরোধের জের ধরে ব্যবসায়ীক প্রতিষ্ঠান ও সেমি পাকা একটি বিল্ডিং ভাংচুরের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় হাবিবুর রহমান বাদী হয়ে চৌদ্দগ্রাম থানায় ৫ জনের বিরুদ্ধে একটি অভিযোগ জমা দিয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার সকালে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের উপজেলার ঘোলপাশা ইউনিয়নের বাবুর্চি বাজারে।
থানায় দায়েরকৃত অভিযোগে হাবিবুর রহমান উল্লেখ করেন, ভাংচুরকৃত ব্যসায়ী প্রতিষ্ঠান ও সেমি পাকা একটি বিল্ডিং ঘরটি আমি আমার পৈত্রিক সূত্রে পাওয়া সম্পত্তির নির্মাণ করেছি। বিবাদী মোঃ সৈকত হোসেন, মাছুম বিল্লাহ, আবদুল মান্নানের সাথে সম্পত্তি নিয়ে পূর্ব বিরোধ চলে আসছে। শুক্রবার সকালে তাদের নেতৃত্বে অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিরা বাজারে অবস্থিত মাইশা টিম্বার এন্ড সু-মিলে হামলা চালিয়ে ভাংচুর করে মূল্যেবান ফার্ণিচার লুট করে নেয় এসময় বিরোধকৃত সেমি পাকা বিল্ডিংটি চার দিকের ওয়াল দরজা জানালা হামার দিয়ে সম্পন্ন গুড়িয়ে দেয়। ফার্ণিচার দোকানের ক্যাশে রক্ষিত দুই লক্ষ টাকাসহ ফার্ণিচার লুট করে নিয়ে যায়। এতে প্রতিষ্ঠানের প্রায় দশ লক্ষ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে হাবিবুর রহমান দাবী করেন।
বিবাদী সৈকত হোসেন অস্বীকার করে বলেছেন, ভাংচুরের ঘটনার সম্পর্কে আমি কিছুই জানি না।
ঘোলপাশা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান একে খোকন বলেন, ভাংচুরের ঘটনাটি সত্য। আমি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। দুই পক্ষই আমার কাছে এসেছে। আমি উভয় পক্ষ শান্ত থাকার জন্য বলেছি এবং গ্রাম আদালতের মাধ্যমে বিষয়টি শুষ্টু সমাধানের আশ^াস দিয়েছি।

এব্যাপারে চৌদ্দগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শুভ রঞ্জন চাকমা বলেন, অভিযোগের বিষয়টি তদন্ত করা হচ্ছে। তদন্তে সত্যতা প্রমাণিত হলে বিবাদীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

� পূর্ববর্তী সংবাদ পরবর্তী সংবাদ �
Hosting
সর্বশেষ সংবাদ
  • সর্বাধিক পঠিত