দ্যা ঢাকা মার্কেন্টাইল কো-আপারেটিভ ব্যাংকের কর্মকর্তার অভিনব প্রতারণার অভিযোগে থানায় জিডি


নিউজ ডেস্কঃ প্রকাশের সময় : মে ২৪, ২০২১, ১০:২০ পূর্বাহ্ণ /                
দ্যা ঢাকা মার্কেন্টাইল কো-আপারেটিভ ব্যাংকের কর্মকর্তার অভিনব প্রতারণার অভিযোগে থানায় জিডি

অনলাইন ডেস্কঃ দ্যা ঢাকা মার্কেন্টাইল কো-আপারেটিভ ব্যাংক লি: সাতক্ষীরা শাখার ক্রেডিট অফিসারের বিরুদ্ধে কদমতলা বাজারের এক গার্মেন্টস ব্যবসায়ী অভিনব প্রতারণার অভিযোগ তুলেছেন।

ব্যাংকটির সাতক্ষীরা শাখার ক্রেডিট অফিসার মো: সাব্বির হোসেন কদমতলা বাজারের মেসার্স সৌখিন বস্ত্রালয় এ্যান্ড গার্মেন্টস এর স্বত্বাধিকারী আব্দুস সবুরের নামে দুই লক্ষ টাকার ঋণ উত্তোলন করে অভিনব প্রতারণা করেছেন বলে অভিযোগে প্রকাশ। খোঁজ নিয়ে জানা যায়, এই ঋণ নেওয়ার আগেও ভুক্তভোগী আব্দুস সবুরের জমা বইতে ৮৬ হাজার টাকা বকেয়া ছিল। তারপরেও উক্ত সাব্বির হোসেন তার ব্যবহৃত একটি হিরো আই স্মার্ট মোটর বাইক আব্দুস সবুরের নিকট বিক্রয় করার জন্য সে নিজে বকেয়া এর ৮৬ হাজার টাকা পরিশোধ করে আব্দুস সবুর এর নামে দুই লক্ষ ঋণ পাশ করে মোটর বাইক বাবদ নব্বই হাজার টাকা সে নিয়ে নেয়। ফলে আব্দুস সবুর ঋণ বাবদ অন্যন্য খরচ বাদ দিয়ে কোন ক্যাশ টাকা পাননি। সাব্বির হোসেন উক্ত মোটর বাইক দেওয়ার সময় বলেন, গাড়ীতে কোন খরচ নেই। গাড়ীর স্মার্ট কার্ড হয়ে আছে। বিআরটিতে কোন বকেয়া নেই। সাব্বির হোসেনের সাথে ভালো সম্পর্ক থাকার দরুন কোন প্রকার যাচাই না করেই সরল মনে আব্দুস সবুর উক্ত মোটর বাইকটি ক্রয় করেন। কিন্তু আব্্দুস সবুর দু:খের সাথে বলেন, এই ঋণ গ্রহন করার পরেই করোনা মহামারীতে জর্জরিত হয়ে ব্যবসা বাণিজ্য না করতে পারায় সে মানবেতর জীবন যাপন করে। কারণ বশত: কয়েকটি কিস্তি দিতে না পারায় দিন দিন মানসিকভাবে ভেঙে পড়ে। এক পর্যায়ে মোটর বাইকটির নাম পরিবর্তন করতে গিয়ে বিআরটিতে খোজ নিয়ে জানতে পারেন যে, বিআরটিতে ৯৭০০ টাকা বকেয়া আছে। তখন এ বিষয়ে সাব্বির হোসেনের নিকট জানতে চাইলে সে বলে কেনার সময় দেখে নিতে হতো। আমি গাড়ী বিক্রয় করেছি এই গাড়ীর বিষয়ে আমার কোন দায়-দায়িত্ব নেই। বেশি জোরাজুরি করলে করলে মিথ্যা ছিনতাই মামলা দিয়ে জেল খাটাবো এবং তোমার ভাইয়ের চাকরীর ক্ষতি করবো। এহেন পরিস্থিতিতে কাপড় ব্যবসায়ী আব্দুস সবুর নিরুপায় হয়ে সাতক্ষীরার শাখার ম্যানেজার জনাব রফিকুজ্জামান এর শরনাপন্ন হলে তিনি বলেন, এটি আপনাদের ব্যক্তিগত বিষয়, ঋণের সাথে গাড়ি বিক্রয়ের কোন সম্পর্ক নেই। কিন্তু তিনি সাথে সাথে এটিও বলেন, আব্দুস সবুর তার বইতে পাওনা আনুমানিক ৫০ হাজার টাকা এককালীন পরিশোধ করলে সে বিষয়টি নিয়ে সাব্বির হোসেনের সাথে আলোচনা করে দেখবে। বাধ্য হয়ে আব্দুস সবুর দ্যা ঢাকা মার্কেন্টাইল কো-আপারেটিভ ব্যাংক লি: সাতক্ষীরা শাখার ক্রেডিট অফিসার মো: সাব্বির হোসেনের বিরুদ্ধে সাতক্ষীরা সদর থানায় একটি জিডি করেছেন, যার জিডি নং ১০৬৩, তারিখ: ১৯-০৫-২০২১। এবিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য কর্তৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেন আব্দুস সবুর।