শিক্ষা খাতে সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দিচ্ছে সরকার : পরিকল্পনামন্ত্রী


নিউজ ডেস্কঃ প্রকাশের সময় : ফেব্রুয়ারি ২, ২০২১, ১:৫৫ পূর্বাহ্ণ /                
শিক্ষা খাতে সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দিচ্ছে সরকার : পরিকল্পনামন্ত্রী

খালেদ আহমেদঃঃ জামেয়া হাজী আক্রম আলী দাখিল মাদ্রাসার চার তলা একাডেমিক ভবনের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান

বর্তমান সরকার দেশের শিক্ষা খাতকে সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দিয়ে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে বহুতল ভবন ও শিক্ষকদের বেতন ভাতা বৃদ্ধিসহ ডিজিটাল ল্যাব স্থাপন করেছে বলে জানিয়েছেন সরকারের পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান। সোমবার (১ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে সুনামগঞ্জের দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলায় এ কথা জানান তিনি।
পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, ‘বর্তমান সরকার শিক্ষার মানোন্নয়নে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে নতুন বহুতল ভবন, শিক্ষকদের বেতন ভাতা বৃদ্ধিসহ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ডিজিটাল ল্যাব স্থাপন করেছে। আওয়ামী লীগ সরকারের আমলে শিক্ষা ব্যবস্থায় আমূল পরিবর্তন এসেছে। এই সরকার দেশের সকল স্কুল-কলেজের পাশাপাশি আলিয়া মাদ্রাসাগুলোতেও একাডেমিক ভবন নির্মাণ করে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে।’

মন্ত্রী বলেন, ‘একটি জাতিকে সুস্থভাবে গড়তে শিশুদের শিক্ষার ভিত্তি মজবুত করতে হবে। সেই লক্ষ্যে সরকার বিনামূল্যে বই বিতরণ, শিক্ষাবৃত্তি, অবকাঠামো নির্মাণ, স্কুল জাতীয়করণ ও এমপিওভুক্তিসহ অনেক যুগান্তকারী পদক্ষেপ নিয়েছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘দেশে এখন কোনো কিছুর অভাব নেই। জনগণের প্রয়োজনে সব করা হচ্ছে। দেশ এখন উন্নয়নের আলোয় আলোকিত। আর এসব উন্নয়ন কর্মযজ্ঞ সম্ভব হয়েছে বর্তমান সরকারের সুনির্দিষ্ট পরিকল্পনার জন্য।’

সোমবার দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলার জামেয়া হাজী আক্রম আলী দাখিল মাদ্রাসার ৪ তলা একাডেমিক ভবন, পাগলা উচ্চ বিদ্যালয় অ্যান্ড কলেজ ভবন, আমড়িয়া ইসলামীয়া দাখিল মাদ্রাসা ভবনের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেন মন্ত্রী।

এ সময় সুনামগঞ্জের জেলা প্রশাসক মো. জাহাঙ্গীর হোসেন, পরিকল্পনামন্ত্রীর একান্ত ব্যক্তিগত সহকারী মাসুম বিল্লাহ, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জেবুন নাহার শাম্মী, থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কাজী মোক্তাদির হোসেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল হেকিম, সাধারণ সম্পাদক আতাউর রহমান, সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল লতিফ কালাশাহ, পরিকল্পনামন্ত্রীর একান্ত রাজনৈতিক সচিব হাসনাত হোসেন, পশ্চিম পাগলা ইউপি চেয়ারম্যান নুরুল হক, পাগলা হাইস্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ সৈয়দ রমিজ উদ্দিন, হাজী আক্রম আলী দাখিল মাদ্রাসার সুপার রফিকুল ইসলাম, আমড়িয়া দাখিল মাদ্রাসায় সুপার আবু নছর মোহাম্মদ ইব্রাহীম উপস্থিত ছিলেন।