ভেঙে দেওয়া হচ্ছে বিএনপির সকল কমিটি

অনলাইন ডেস্কঃ বিএনপিতেও চলছে সম্মেলনের জোর প্রস্তুতি। মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটি বিলুপ্ত করে আহ্বায়ক কমিটি গঠনের পর থেকে শুরু হয়েছে জেলা বিএনপির সম্মেলনের কাজ। আগামী নেতৃত্ব কেমন হবে ঢাকায় ডেকে তার দিকনির্দেশনা দিয়েছেন দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান। সিলেটে এসেও রুদ্ধদ্বার বৈঠক করে নির্দেশনা দিয়ে গেছেন কেন্দ্রীয় নেতারা। আগামী ২৯ ডিসেম্বর সিলেট জেলা বিএনপির সম্মেলন করার সম্ভাব্য তারিখ নির্ধারণ করে দিয়ে গেছেন তারা।

কেন্দ্রীয় ভাইস চেয়ারম্যান ডা. এ জেড এম জাহিদ হোসেনের নেতৃত্বে ঢাকা থেকে কেন্দ্রীয় একটি প্রতিনিধি দল গত সোমবার সিলেট জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সঙ্গে বৈঠক করে। বৈঠকে বেশ কিছু নির্দেশনা দেন তারা।

সিলেট জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কামরুল হুদা জায়গীরদার জানান, কেন্দ্রীয় নেতাদের নির্দেশনা অনুযায়ী আগামী কয়েক দিনের মধ্যে জেলার আওতাধীন ১৩টি উপজেলা ও ৫টি পৌর কমিটি ভেঙে দেওয়া হবে। সম্মেলনের প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে আগামী ১১ নভেম্বর সিলেটের সব উপজেলা, পৌরসভা ও ইউনিয়ন কমিটির নেতৃবৃন্দকে নিয়ে বৈঠক আহ্বান করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি ও বর্তমান আহ্বায়ক কমিটির সদস্য আবুল কাহের চৌধুরী শামীম। তিনি বলেন, ওইদিন তৃণমূল পর্যায়ের নেতাদের কাছ থেকে জেলা সম্মেলন ও দলকে কীভাবে আরও সুসংগঠিত ও শক্তিশালী করা যায় এ ব্যাপারে পরামর্শ নেওয়া হবে।

এরপর ওই বৈঠকেই জেলার আওতাধীন সব কমিটি ভেঙে গিয়ে গঠন করা হবে আহ্বায়ক কমিটি। প্রতিটি কমিটি হবে ২৫ সদস্যের। এরপর ইউনিয়নের নেতৃবৃন্দ সম্মেলনের মাধ্যমে নির্ধারণ করবেন উপজেলা পর্যায়ে তাদের নেতৃত্ব। প্রসঙ্গত, গত ২ অক্টোবর সিলেট জেলা বিএনপির মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটি বিলুপ্ত করে সাবেক সহসভাপতি কামরুল হুদা জায়গীরদারকে আহ্বায়ক করে ২৫ সদস্যের কমিটি ঘোষণা করা হয়। গত ১৭ অক্টোবর কমিটির নেতৃবৃন্দ দলের প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের কবর জিয়ারত করেন। ওইদিন সন্ধ্যায় কেন্দ্রীয় কার্যালয় থেকে স্কাইপে দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সঙ্গে কথা বলেন জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির নেতারা। ওই সময় তারেক রহমান আগামী দিনের নেতৃত্ব নির্বাচনের দিকনির্দেশনা দেন।

বাংলাদেশ প্রতিদিন

সংবাদকর্মি নিয়োগ চলছেঃ-

দেশের সকল জেলা উপজেলাইয় সংবাদকর্মি নিয়োগ চলছে । আমাদের সাথে কাজ করতে সরাসরি যোগাযুগ করুন ০১৭১১০০০২১৪