অপটিমিস্ট’র ৮ লক্ষ টাকা বৃত্তি বিতরণ

1

সিলেট:: প্রবাসী বাঙ্গালিদের সংগঠন দি অপটিমিস্ট সিলেট নগরীসহ জেলার বিভিন্ন
উপজেলার ১৫৫ জন মেধাবী শিক্ষার্থীর মধ্যে শিক্ষাবৃত্তি হিসেবে নগদ প্রায় ৮ লক্ষ
টাকা বিতরণ করেছে। বৃত্তিপ্রাপ্তদের মধ্যে মেডিকেল ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী
রয়েছেন ১১ জন। অপটিমিস্ট-এর উদ্যোগে ৩৮ তম বারের মত মেধা বৃত্তি প্রদান
উপলক্ষে শুক্রবার নগরীর সৈয়দ হাতিম আলী উচ্চ বিদ্যালয়ে আয়োজিত অনুষ্ঠানে
প্রধান অতিথির বক্তব্যে দি অপটিমিস্টের আমোরিকার স্পন্সর অধ্যাপিকা রানা
ফেরদৌস চৌধুরী বলেছেন, আমাদের এই নতুন প্রজন্মকে শিক্ষার আলোয়
আলোকিত করতে হবে। শিক্ষিত প্রজন্ম ছাড়া জাতীয় উন্নয়ন সম্ভব নয়। আমাদের
প্রবাসীরা দেশের গরীব দরিদ্র ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের শিক্ষার উন্নয়নের জন্যে
চিন্তা করে। মেধাবী শিক্ষার্থীদেরকে প্রেরণা শক্তি যোগাতে অপটিমিস্টের এ
আয়োজন। তিনি শিক্ষার্থীদের নিজেদের ফোকাস ঠিক এগিয়ে যাওয়ার আহবান
জানিয়ে বলেন তাহলে জীবনে সাফল্য অর্জন সম্ভব।
অপটিমিস্টের সিলেট জেলা কোÑঅর্ডিনেটর প্রফেসর মো. আব্দুল মতিনের
সভাপতিত্বে ও অপটিমিস্টের প্রেস ও কমিউনিকেশন ডাইরেক্টর ফটো জার্নালিস্ট
এসোসিয়েশনের সদ্যপ্রাক্তন সভাপতি আবদুল বাতিন ফয়সলের পরিচালনায়
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন দি অপটিমিস্টের সিলেট জেলার প্রতিষ্ঠাতা
হেলথ ডাইরেক্টর ও সিলেট উইমেন্স মেডিকেল কলেজের ভাইস প্রিন্সিপাল ডা. ফজলুর
রহিম কাওসার। গোলাপগঞ্জের ঢাকা দক্ষিণ বহুম‚খী উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী
ফারজানা আক্তার সুমাইয়া-এর পবিত্র কোরআান তেলাওয়াতের মাধ্যমে শুরু হওয়া
অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ পুস্তক প্রকাশক ও বিক্রেতা
সমিতি সিলেট জেলার সাবেক সভাপতি রোটারিয়ান মাহবুবুল আলম মিলন,
অপটিমিস্ট সিলেট শাখার ফাইন্যান্স এন্ড এ্যাকাউন্টস ডাইরেক্টর সিলেট কৃষি
বিশ^বিদ্যালয়ের মাইক্রোবায়োলজি বিভাগের প্রফেসর ড. সুলতান আহমদ টিপু,
অপটিমিস্ট বাংলাদেশ’র জেনারেল সেক্রেটারি এ.কে.এম সাইদুল করিম, কবি
আখলাক আহমদ, অপটিমিস্ট বৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থী সদ্য ফরিদপুর মেডিকেল
কলেজে চান্সপ্রাপ্ত মোস্তাফিজুর রহমান, সিলেট সরকারি কলেজের আই এ ২য় বর্ষের
শিক্ষার্থী সানজিদা হাফিজ রাজিতা, গোলাপগঞ্জের ঢাকা দক্ষিণ বহুমুখী উচ্চ
বিদ্যালয়ের ছাত্রী বর্ণালী মালাকার। অনুষ্ঠানে অপটিমিস্ট আয়োজিত ৩টি
বিভাগের রচনা প্রতিযোগিতায় সিলেট জেলার পুরস্কার প্রাপ্তদের হাতে পুরস্কার
তুলে দেয়া হয়। পুরস্কারপ্রাপ্তরা হচ্ছেন ফাহিমা বেগম, আমিনা আক্তার লাকি, বুশরা
মাহমুদ সঞ্জনা, নূর মোহাম্মদ ফারহান, ফাতেমা বেগম।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে দি অপটিমিস্টের সিলেট জেলার প্রতিষ্ঠাতা হেলথ ডাইরেক্টর
ও সিলেট উইমেন্স মেডিকেল কলেজের ভাইস প্রিন্সিপাল ডা. ফজলুর রহিম কাওসার
বলেন, প্রবাসীদের সাহায্যের মুল কারণ হচ্ছে পড়ালেখা করে ভালো মানুষ হওয়া।
নাড়ির টানে দেশের প্রতি ভালোবাসার টানে আজ দীর্ঘ ১৮বছর পূর্ণ করলো
অপটিমিস্ট। এ দীর্ঘ পথচলায় ২/৩ কোটি টাকা শিক্ষার্থীদের বৃত্তি দেয়া হয়েছে।

তিনি প্রাপ্ত অর্থ সঠিকভাবে কাজে লাগিয়ে শিক্ষার্থীদেরকে জীবনের লক্ষ্য ঠিক
রেখে নিজেদেরকে জ্ঞানের আলোর আলোকিত করে কর্মজীবনে সাফল্য অর্জনের
মাধ্যমে প্রবাসীদের বৃত্তির মূল্যায়ন করার আহবান জানান।
আমোরিকায় প্রতিষ্ঠিত প্রবাসী বাঙ্গালিদের সংগঠন দি অপটিমিস্ট সিলেট
সহ ২৪টি জেলায় তার বৃত্তি কার্য্যক্রম পরিচালিত করছে।