সিলেট রেলওয়ে সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস শোনালেন মুক্তিযোদ্ধা সামসুল ইসলাম গাজী

2

সিলেট::নগরীর দক্ষিণ সুরমার ২৬নং ওয়ার্ডের সাধুর বাজার সিলেট রেলওয়ে
সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে গতকাল ১৮ এপ্রিল বৃহস্পতিবার দুপুর
১২টায় বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের নিয়ে মহান মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক আলোচনা
সভা অনুষ্ঠিত হয়।
মহান মুক্তিযুদ্ধে ৪নং সেক্টরের কোম্পানী কমান্ডার, সিলেট জেলা
মুক্তিযোদ্ধা সংসদ এর সাবেক ডেপুটি কমান্ডার, ন্যাশনাল ফ্রিডম
ফাইটার্স ফাউন্ডেশন সিলেট জেলা আহবায়ক বীর মুক্তিযোদ্ধা সামসুল
ইসলাম গাজী অতিথি হিসেবে শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে মহান মুক্তিযুদ্ধের
গৌরব গাথা স্মৃতি রোমন্থন করে বলেন, মুক্তিযুদ্ধ একদিনে সংগঠিত
হয়নি। এই দেশকে নিয়ে অনেক ষড়যন্ত্র করা হয়েছে। কিন্তু বাঙালিরা
সকল ষড়যন্ত্রের জাল ছিন্ন করে একটি স্বাধীন সার্বভৌম বাংলাদেশ
প্রতিষ্ঠা করতে এদেশের মানুষ ছিল বদ্ধ পরিকর। মুক্তিযুদ্ধের মহান নেতা
বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ডাকে দেশের আবাল, বৃদ্ধ, বণিতা অস্ত্র
ছাড়াই সশস্ত্র বাহিনীর বিরুদ্ধে যুদ্ধে নেমে পড়েছিল। মহান
মুক্তিযুদ্ধের অগ্রসেনানী বঙ্গবীর জেনারেল এম.এ.জি ওসমানীর অবিচল
নেতৃত্বে বাংলাদেশের মানুষ নয় মাসের রক্তক্ষয়ী যুদ্ধে এদেশকে স্বাধীন
করেছে। ৩০ লাখ মানুষের রক্তে রঞ্জিত হয়ে আমরা একটি লাল সবুজের পতাকা
পেয়েছি। তাই আমরা স্বাধীন সার্বভৌম গণতান্ত্রিক দেশের নাগরিক।
তিনি শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে আরো বলেন, তোমাদের উপর আজ অনেক
দায়িত্ব, আমরা তোমাদের একটি দেশ উপহার দিয়েছি, তোমরা এইদেশের
কান্ডারী হয়ে আগামীতে দেশ পরিচালনা করবে। ক্ষুধা, দারিদ্রমুক্ত ও
শোষণমুক্ত একটি রাষ্ট্র গঠন করবে তোমরা। যেখানে থাকবে না কোন
অন্যায় অবিচার। তিনি ক্ষুদে শিক্ষার্থীদের আগামীর পথ চলায়
মনোযোগ সহকারে পড়লেখার আহবান জানিয়ে বলেন, তোমরাই হবে
আগামীর বাংলাদেশ।
মুক্তিযুদ্ধের বিষয়ক আলোচনা অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন
বিশিষ্ট শিক্ষানুরাগী মাসুক আহমদ চৌধুরী, আকরাম হোসেন,
বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা গুলরেজ ইয়াসমীন, সহকারী শিক্ষিকা কৃষ্ণা
সূত্রধর, শিক্ষিকা সামিয়া তানরিন, জামিয়া ফেরদৌসী রশিদ, লীলা রাণী
দাস, ফাহমিদা আক্তার, সেলিনা বেগম, রোমিন তামান্না, মুক্তিযোদ্ধার
সন্তান রেদওয়ানুল ইসলাম গাজী (বিজয়) প্রমুখ। বিজ্ঞপ্তি