আজকের কাগজ

BANGLADESHI Latest Online News

শেখ হাসিনার নেত্রীত্বে বাংলার দ্বিতীয় বিপ্লব – হিরন চৌধুরী, সাংগঠনিক সম্পাদক ইটালি আওয়ামীলীগ,ফ্লোরেন্স শাখা।

1 min read

মুক্তমত, ইটালিঃ ১৯৮১ সাল, ১৭ ই মে যখন প্রবাস জীবন শেষে বিভিন্ন প্রতিকূল পরিস্থিতি পেরিয়ে আওয়ামী লীগ সভানেত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা স্বদেশের মাটিতে পা রাখলেন,ঠিক সেই সময়ে তৎকালীন সরকার অবজ্ঞাস্বরুপ উনার প্রতি মন্তব্য করেছিল
” অবলা নারী “।

দেশে ফিয়ে যাকে নানান বাধার মুখে পরতে হয়েছিল , এমন কি কেউ তৎকালিন সরকারের ভয়ে তাকে বাসা ভাড়া পর্যন্ত দিতে পারেননি। সেই নেত্রী নিজ নেত্রিত্বের গুণে সাধারন মানুষের দোয়া ও ভালোবাসায় ভর করে তিলে তিলে তার সংগঠন কে পূনরায় দার করিয়েছেন। নিয়ে গেছেন মানুষের আস্থা ও ভরসার যায়গায় এবং ফলস্বরূপ এদেশের মানুষও তার বাবার মতো তাকেও কোনদিন খালি হাতে ফেরাননি, এবং এ জন্যই ১৯৯৬ সালে বিপুলসংখ্যক আসন নিয়ে সরকার গঠন করতে সমর্থ হয়েছিলেন।

সেই থেকে ব্যক্তিগত স্বার্থ চরিতার্থ বা সকল লোভ লালসার উর্ধ্বে থেকে সাম্প্রদায়িকতা, সাম্রাজ্যবাদ, পূজিবাদ, শোষনের বিরুদ্ধে লড়াই করে মানবসেবায় ব্রত রয়েছেন। কারন তার শিরায় শিরায় হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাংগালী শেখ মুজিবুর রহমানের রক্ত বহমান।

করতে চেয়েছেন পিতা হত্যার বিচার, রাজাকারের বিচার, বুদ্ধিজীবী হত্যার বিচার, ৩০ লক্ষ শহিদের বিচার নিজের দাইত্ব বোধ থেকে, কিন্তু এতেই হায়েনার দল তাকে চিরতরে শেষ করতে উঠেপরে লেগেছিল। সমাবেশ স্থলে বোমা পেতে রাখা, গ্রেনেড হামলা কোন কিছুই তার উপর থেকে বাদ যায়নি। প্রায় ২৩ বার জীবনের উপর হামলা উপেক্ষা করে, জীবনে মায়া ত্যাগ করে চালিয়ে গেছেন সংগ্রাম। ত্যাগের মহিমায় এখনো তিনি জনগনের জন্য মৃত্যুকে আলিংগন করতে সদা প্রস্তুত।

রাজনীতি ব্যবসা নয়, আজীবন স্বপ্ন দেখেন দেশে, শোষনহীন সমাজ গঠনের, শুধুমাত্র দেশ ও জনগনের স্বার্থে কাজ করলেই এই স্বপ্নের বাস্তবায়ন সম্ভব। যার রাজনৈতিক জীবনের এখন ১নং অনুপ্রেরণা এবং আদর্শ বলা যায় ” বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত ২য় বিপ্লবের কর্মসূচী বাস্তবায়ন। ”

বর্তমানে সুখের বিষয় হল, এডিবি’র এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে এশীয় ও প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের মধ্যে বাংলাদেশ ৪৯ টি দেশের মধ্যে এখন ১৩ তম। চীন ১ নম্বরে। সিঙ্গাপুর বা হংকং কে পিছনে ফেলে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ । এটা স্বপ্ন নয় এখন বাস্তবতা। আমরা বঙ্গবন্ধুর অসামাপ্ত কর্মসূচী ২য় বিপ্লব বাস্তবায়নের পথে অগ্রসর হতে চলেছি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যুগান্তকারী নেতৃত্বের মহিমায় । এবং সর্বশেষ বিশ্বের ক্ষমতাধর নারী নেত্রিত্বে যিনি ভারতের ইন্দিরা গান্ধিকে পর্যন্ত পেছনে ফেলে ৫ এর ভেতর অবস্থান করতে সক্ষম হয়েছেন।

তাই সকল আওয়ামী সহযোদ্ধাদের প্রতি আকূল আবেদন, আপনারা জাতীর পিতা শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শ ও জননেত্রী শেখ হাসিনার দিক নির্দেশনা কে আকড়ে ধরে দেশ কে সমৃদ্ধ করার কল্পে এগিয়ে যেতে পারেন তাহলে নতুন সূর্যদয় আমাদের নিশ্চিত।

জয় বাংলা।
জয় বঙ্গবন্ধু।

ইটালির ফ্লোরেন্স থেকে জনাব হিরন চৌধুরী। সাংগঠনিক সম্পাদক, ইটালি আওয়ামীলীগ, ফ্লোরেন্স শাখা।