চৌদ্দগ্রামে উন্নীত বেতন গ্রেডসহ ৭ দফা দাবিতে প্রাথমিক শিক্ষকদের মানববন্ধন

3

চৌদ্দগ্রাম (কুমিল্লা) প্রতিনিধি: কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির উদ্যোগে উন্নীত গ্রেডে বেতন প্রদানসহ সাত দফা দাবিতে বৃহস্পতিবার বিকেলে বিশাল মানববন্ধন কর্মসুচি পালিত হয়েছে। ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের চৌদ্দগ্রাম দোয়েল চত্বরে অনুষ্ঠিত মানব বন্ধন পূর্ব আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন শিক্ষক সমিতির উপজেলা সভাপতি মোঃ আবদুল জলিল। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সমিতির সাধারণ সম্পাদক ও শিক্ষক প্রতিনিধি মজিবুর রহমান, সহ-সভাপতি আবুল কালাম, কাজী কামাল পাশা, এরশাদ উল্লাহ, সাইফুল ইসলাম, মোঃ ইয়াছিন, হাবিব উল্যাহ, ফেরদৌস আরা, হাছিনা আক্তার, তাসলিমা আক্তার, জেলা মহিলা সম্পাদিকা কামরুন্নাহার মজুমদার, উপজেলা সাংগঠনিক সম্পাদক হুমায়ুন কবির, অর্থ সম্পাদক শাহীন খন্দকার, দপ্তর সম্পাদক মাহবুবুল হক, প্রকাশনা সম্পাদক নেছার আহাম্মদ, প্রচার সম্পাদক খোরশেদ আলম, সহ-সম্পাদক আবাদ মিয়া, কাশিনগর ইউনিয়ন সাধারন সম্পাদক শাখাওয়াত হোসেন, কাব স্টাউট সম্পাদক কাজী কবির হোসেনসহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ।
বাংলাদেশ প্রাথমিক শিক্ষকদের সমিতির কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি আনোয়ারুল ইসলাম তোতা ও সাধারণ সম্পাদক গাজীউল হক চৌধুরী স্বাক্ষরিত সাতদফা দাবিসমূহ হচ্ছে; ১.সহকারি শিক্ষকদের ১১তম ও প্রধান শিক্ষকদের ১০ম গ্রেডে বেতন প্রদান, দ্বিতীয় শ্রেণীর গেজেটেড মর্যাদা প্রদানে প্রধান শিক্ষকদের বাই নেমে গেজেট বিজ্ঞপ্তি প্রকাশসহ সেল্ফ ড্রয়িং ক্ষমতা প্রদান করা। ২.পদোন্নতিপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকদের করসপন্ডিং স্কেল প্রদান। ৩.সহকারি শিক্ষক পদকে এন্ট্রি পদ ধরে পরিচালক পর্যন্ত পদোন্নতি। ৪.চলতি দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকদের পদোন্নতির গেজেট প্রকাশ। ৫. ৯ মার্চ ১৪ থেকে ১৪ ডিসেম্বর সাল পর্যন্ত প্রধান শিক্ষকদের প্রাপ্ত টাইম স্কেল প্রদান। ৬.প্রাথমিক শিক্ষকদের চাকুরি নন ভেকেশনাল হিসাবে গণ্য করতে হবে। ৭.বিদ্যালয়ের সময়সুচি সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৩টা পর্যন্ত করতে হবে।
দাবিগুলো আদায়ে ঘোষিত কর্মসূচি হচ্ছে; বৃহস্পতিবার বেলা ৩টায় দেশব্যাপী উপজেলা সদরে মানব বন্ধন। ২৬ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ৩টায় সারা দেশের জেলা সদরে মানব বন্ধন। ২৩ অক্টোবর বুধবার বেলা ১১টায় ঢাকায় জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে মানব বন্ধন এবং প্রধান মন্ত্রীর কার্যালয় অভিমুখে পদযাত্রা ও স্মারকলিপি প্রদান। এরমধ্যে দাবি আদায় না হলে ৩০ ডিসেম্বর সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে পরবর্তী কর্মসূচি ঘোষণা।