‘জিয়াউর রহমান ছিলেন স্বাধীনতার তিন নম্বর ঘোষণা পাঠক’

এম এ আলম,চৌদ্দগ্রাম প্রতিনিধিঃঃ আওয়ামীলীগের ৭০তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষ্যে মাস ব্যাপী আয়োজনের আজ ০৩ জুলাই চৌদ্দগ্রাম বাজারে চৌদ্দগ্রাম পৌর আওয়ামীলীগ ও মুন্সীরহাট ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের উদ্যোগে আয়োজিত জনসভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ এমপি।

তিনি বলেন যুদ্ধ চলাকালীন সময়ে জিয়াউর রহমান পাকিস্তানি জাহাজের একজন অস্ত্র খালাসি হিসেবে কাজে নিয়োজিত ছিলেন। সেখান থেকে তাকে জোর করে ধরে এনে কালুরঘাট বেতারকেন্দ্রে স্বাধীনতার ঘোষণাপত্রটি পাঠ করানো হয়েছে। আমি চ্যালেঞ্জ করে বলতে চাই, জিয়াউর রহমান স্বাধীনতার ঘোষক ছিলেন না। তিনি ছিলেন তিন নম্বর ঘোষণাপাঠক, তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশের স্বাধীনতা কোন গোল টেবিলের আলোচনার মাধ্যমে আসেনি। বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে নয় মাস রক্তক্ষয়ী যুদ্ধ, ত্রিশ লাখ মানুষ শহীদ ও দুই লাখ মা-বোনের ইজ্জতের বিনিময়ে এদেশের স্বাধীনতা অর্জন হয়েছে।
নতুন করে সংসদের বিএনপির একজন সংসদ সদস্য মিমাংশিত এই বিষয়টিকে নিয়ে আবারও ঘোলা পানিতে মাছ শিকার করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। আমি বিএনপির ওই সাংসদের বক্তব্যের তুমুল বিরোধীতা করে স্বাধীনতার পক্ষোবোক্ত প্রমাণ দিয়েছি যে, বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে এদেশ স্বাধীন হয়েছে।
তিনি আরও বলেন, জিয়াউর রহমান স্বাধীনতার চেতনায় বিশ্বাসী ছিলেন না। তিনি ছিলেন পাকিস্তানের ধারক ও বাহক। যদি স্বাধীনতার স্বপক্ষের লোক হয়ে থাকতেন, একজন মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে কখনও রাজাকার-আলবদরদেরকে এদেশের মন্ত্রীর আসনে বসাতেন না।
উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আবদুস সোবহান ভুঁইয়া হাসানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা ছিলেন
চৌদ্দগ্রামের সর্বস্তরের গণমানুষের নেতা কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাবেক সফল রেলপথ মন্ত্রী চৌদ্দগ্রাম থেকে বার বার নির্বচিত সংসদ সদস্য মো: মুজিবুল হক এমপি।
সমাবেশে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সংসদ সদস্য সরোয়ার বাহার বাদশা, চৌদ্দগ্রাম পৌর মেয়র মিজানুর রহমান, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান এবিএম এ বাহার, জেলা আ`লীগ নেতা আলী হোসেন চেয়ারম্যান,উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান রাশেদা আখতার, জেলা আ`লীগ নেতা সামছুল আলম মজুমদার,আ`লীগ নেতা মোঃ কামাল উদ্দিন, উপজেলা আ`লীগ নেতা আকতার হোসেন পাটোয়ারী, মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আবুল হাশেম, আ`লীগ নেতা জি এম মীর হোসেন মীরু,আ` লীগ নেতা ভ.ম আফতাবুল ইসলাম ভুঁইয়া,
ইউপি চেয়ারম্যান গোলাম ফারুক হেলাল, জিএম জাহিদ হোসেন টিপু, শাহজালাল মজুমদার, মাহবুব হোসেন মজুমদার, সৈয়দ আহাম্মদ খোকন, জয়নাল আবেদীন খোরশেদ, মোশারেফ হোসেন, কাজী জাফর, একরামুল হক, মাহফুজ আলম, আ’লীগ নেতা কামরুল হাসান মুরাদ, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারন সম্পাদক শাহীন মজুমদার, জেলা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক লোকমান হোসেন রুবেল, উপজেলা ছাত্রলীগের আহবায়ক তৌফিকুল ইসলাম সবুজ, এ ছাড়াও সমাবেশে বিভিন্ন পর্যায়ের আ.লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, শ্রমিকলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগসহ অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

‘জিয়াউর রহমান ছিলেন স্বাধীনতার তিন নম্বর ঘোষণা পাঠক’

‘জিয়াউর রহমান ছিলেন স্বাধীনতার তিন নম্বর ঘোষণা পাঠক’

সংবাদকর্মি নিয়োগ চলছেঃ-

দেশের সকল জেলা উপজেলাইয় সংবাদকর্মি নিয়োগ চলছে । আমাদের সাথে কাজ করতে সরাসরি যোগাযুগ করুন ০১৭১১০০০২১৪