এবার পটুয়াখালিতে মোবাইলে ডেকে নিয়ে ধর্ষণ

1

জেলার খবরঃঃ পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলার পূর্ব কালাইয়া গ্রামের কলেজ পড়ুয়া এক শিক্ষার্থীকে মোবাইল ফোনে ডেকে নিয়ে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে তার প্রেমিকের বিরুদ্ধে। বিষয়টি সামাজিকভাবে ফয়সালা করার চেষ্টায় ব্যর্থ হয়ে ওই শিক্ষার্থীর বাবা থানায় অভিযোগ করলে বুধবার রাতে অভিযুক্ত প্রেমিক রাসেদুল ইসলাম জুয়েলকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। এদিকে নির্যাতিতাকে মেডিকেল পরীক্ষার জন্য পটুয়াখালীর ২৫০শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। প্রেমিক রাসেদুল একই গ্রামের সাহাদুল মাতব্বরের ছেলে ও ইদ্রিছ মোল্লা ডিগ্রি কলেজের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার ইদ্রিছ মোল্লা ডিগ্রি কলেজের প্রথম বর্ষের ছাত্রীর সাথে একই কলেজের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র রাশিদুল ইসলাম জুয়েলের সাথে দীর্ঘদিন পর্যন্ত প্রেমের সম্পর্ক চলে আসছিল। গত ১০ এপ্রিল জরুরি কথা আছে বলে রাশেদুল মোবাইলের মাধ্যমে তার প্রেমিকাকে ঘরে ডেকে আনে। একপর্যায়ে প্রেমিক বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণ করে প্রেমিকাকে। বিষয়টি এলাকায় প্রকাশ পেলে স্থানীয় লোকজন সামাজিক ভাবে ফয়সালার চেষ্টা হয়। কিন্তু তাতে ব্যর্থ হয়ে ১৭ এপ্রিল বুধবার মেয়ের বাবা বাউফল থানায় রাশেদুলকে আসামি করে ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন।

পুলিশ বৃহষ্পতিবার রাশেদুলকে গ্রেপ্তার করে আদালতে সোপর্দ করেছেন এবং নির্যাতিতাকে মেডিকেল পরীক্ষার জন্য পটুয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে পাঠিয়েছেন।

বাউফল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খন্দোকার মোস্তাফিজুর রহমান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান এ ব্যাপারে পরবর্তী প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।সূত্রঃ যমুনা টিভি ।