কুড়িগ্রামে শৈত্য প্রবাহ ও হিমেল হাওয়ায় মানুষের দুর্ভোগ

3

অনলাইন ডেস্কঃ কুড়িগ্রামে গত ৮দিন যাবত চলমান শৈত্য প্রবাহ ও হিমেল হাওয়ায় কমেনি মানুষের দুর্ভোগ। সন্ধ্যা থেকে রাতভর কুয়াশায় ঢেকে থাকে গোটা জনপদ। সকাল দশটা পর্যন্ত সুর্যের মুখ দেখা যায়না। ঠান্ডার প্রকোপ থাকলেও সুর্য ওঠার সাথে সাথে কম উত্তাপে ঠান্ডা উপেক্ষা করে দিনমজুর ও নিম্ন আয়ের মানুষজন জমিতে কাজ করতে দেখা যায়।

এখনও ঠান্ডার প্রকোপে মানুষের দুর্ভোগ চরমে। কয়েকদিনের অব্যাহত শৈত্য প্রবাহে সদ্য বুনা বোরো ধানের বীজতলার অনেক জায়গায় কিছু কিছু নষ্ট হওয়ার উপক্রম হয়েছে।তবে কৃষকরা জানিয়েছে, শৈত্য প্রবাহ স্থায়ী হলে এসবের অনেক ক্ষতি হতে পারে।

এদিকে, অতিরিক্ত ঠান্ডার কারণে ইতোমধ্যেই জেলার অনেক হাইব্রিড মুরগীর খামারে গত এক সপ্তাহে দেড় শতাধিক ব্রয়লার মুরগী মারা গেছে বলে খামারীরা জানান।তবে প্রাণিসম্পদ বিভাগ খামারীদের সতর্ক থাকতে বলেছেন।

জেলার জেনারেল হাসপাতালসহ উপজেলার সকল স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সগুলোতে শীত জনিত ডায়রিয়া ও নিউমোনিয়া রোগী ক্রমেই বাড়ছে। প্রতিদিন শীতজনিত রোগে আক্রান্ত হয়ে ভর্তি হচ্ছে শিশু ও বৃদ্ধ।

এদিকে, কুড়িগ্রামে শীতের ঠান্ডায় শীত বস্ত্র সংকটে আছেন ছিন্ন মুল অনেক মানুষ। ইতোমধ্যে শীতবস্ত্র প্রশাসনের পক্ষ থেকে বিতরণ করা হলেও তা প্রয়োজনের তুলনায় নগন্য।

পিবিএ/বিএইচ